যুবরাজ সিং গ্রেফতার, 'জাতিবিদ্বেষী মন্তব্যের' জন্য। পরে জামিনে মুক্তি


গত বছর একটি ইনস্টাগ্রাম চ্যাটের সময় যুবরাজ সিং অন্য ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে জাতিবিদ্বেষী মন্তব্য করেছেন এই অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় ক্রিকেটারকে  । পুলিশের মন্তব্য এটি একটি  কাগজে কলমে গ্রেপ্তার মাত্র -  যখন তিনি হিসার শহরে গিয়েছিলেন। পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের আদেশ মেনে তাকে জামিনে মুক্তিও  দেওয়া হয় তৎক্ষণাৎ ।

রবিবার হরিয়ানা পুলিশ জানিয়েছে, ভারতের জাতীয় দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিংকে হাইকোর্টের আদেশ মেনে একটি জাতিবিদ্বেষী মন্তব্য  মামলায় গ্রেপ্তার করে, পরে তাকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

“যুবরাজ সিং শনিবার হিসারে এসেছিলেন এবং আমরা একটি আনুষ্ঠানিক গ্রেপ্তারকরেছি মাত্র । কয়েক ঘণ্টা পর তাকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়, ” জানালেন  ডিএসপি (হিসার ) বিনোদ শঙ্কর। হিসারের বাসিন্দা রজত কলসান অভিযোগ এর ভিত্তিতেই প্রাক্তন ক্রিকেটারের এই গ্রেপ্তারী । অভিযোগ  একটি ইনস্টাগ্রাম লাইভ সেশনের সময়, সতীর্থ ক্রিকেটার য়ুভেন্দ্রা চাহাল এর  প্রতি তিনি  জাতিবিদ্বেষী মন্তব্য করেছেন যা মোটেই পছন্দ হয় নি হিসারের বাসিন্দা রজত কলসান এর । হরিয়ানা পুলিশ যুবরাজ সিংকে "আনুষ্ঠানিক গ্রেপ্তার" চেয়েছিল, 

হাইকোর্ট, তার বিরুদ্ধে দায়ের করা একটি এফআইআর বাতিল করার জন্য যুবরাজ  সিংয়ের আবেদনের শুনানি করে। নিজ মন্তব্যের জন্য দুঃখ  প্রকাশ করে, যুবরাজ  সিং আগে টুইট করেলিখেছেন "আমি বুঝতে পারি নি আমার মন্ত্যবের গভীরতা,  তখন আমি আমার বন্ধুদের সাথে কথা বলছিলাম । যাইহোক, একজন দায়িত্বশীল ভারতীয় হিসেবে আমি বলতে চাই যে যদি আমি অনিচ্ছাকৃতভাবে কারো বা অনুভূতিতে যদি আঘাত করে থাকি, আমি তার জন্য গভীর ভাবে  দুঃখ  প্রকাশ করছি ।"

Post a Comment

Previous Post Next Post