চোদ্দ বছরের ছেলের জীবন সংগ্ৰামের বাস্তব ছবি

একটা কথার খুব প্রচলন আছে, পূর্ণিমার-চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি, একথা আমরা প্রত্যেকেই জানি যে কোন প্রসঙ্গে ব্যবহার করা হয় এই প্রবাদটি।

 সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি  একটি ১৪ বছরের বালকের জীবন সংগ্রামের ছবি, যেখানে তাঁর জীবনে পড়াশোনা খেলাধুলা নিয়ে বড় হয়ে ওঠার বয়স, সেই বয়সে তাঁকে পেটের দায়ে বিক্রি করতে হচ্ছে দই কচুরি। কারন জীবন ক্ষমা করেনি তাঁকে। শিশু সুলভ আচরণ বাদ দিয়ে তাঁকে দায়িত্ব তুলে নিতে হয়েছে তাঁর সংসারের। বড় কঠিন সে দায়িত্ব, তবু সে পালন করে চলেছে দৃঢ় ভাবে।

   ঘটনাটি ঘটেছে আমেদাবাদ রেল স্টেশনের বাইরে,  যেখানে বালকটি একটি ঠেলাগাড়িতে করে দই কচুরি বিক্রি করছে। তাঁর দোকানের সামনে লম্বা সারি দেওয়া লাইন, মানুষের ভিড় যেখানে একটি ছেলে মনোযোগ সহকারে মানুষের ক্ষুধা নিবৃত্তির চেষ্টা করে চলেছে। আর তার সাথে পালন করছে সংসারের দায়িত্ব। ভিডিওটি অত্যন্ত করুন  ও দুঃখজনক, তার সাথে কষ্টদায়কও বটে।

 আমাদের এই দুনিয়ায় এরকম বহু মানুষের জীবন আছে, যার সাথে আমরা হয়তো পরিচিতই নই। আর এই ছেলেটির ভিডিও টি প্রথম সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন নাগপুরের একজন ফুড ব্লগার, যার নাম দোয়াস পাথরাবে। যিনি এই ভিডিওটি মানুষের কাছে দ্রুত পৌঁছে দেন এবং সোশ্যাল মিডিয়াযর মাধ্যমে। আর ভিডিওটি আসামাত্রই এটি প্রচুর লোক দেখে ফেলেন এবং তারাও শেয়ার করতে থাকেন অনবরত, যাতে এই ছেলেটির দিকে কোন সহৃদয় ব্যক্তি  সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। তাতে যদি ছেলেটির ভবিষ্যৎ একটু সুরক্ষিত হয় কারণ বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি শক্তপোক্ত মাধ্যম এটা অস্বীকার করার কোন জায়গা নেই।

Post a Comment

Previous Post Next Post