অনিকের গানে শোভন বৈশাখী ! না দেখলেই মিস , থাকল লিংক

 

শোভন এবং বৈশাখী, দুজনেই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।  তবে সংবাদের শিরোনামে তাঁরা এসেছিলেন অন্য কারণে। রাস্তায় ঘোড়ার গাড়ি করে ঘুরে বেড়ানো হোক অথবা গানের তালে তালে নাচ করা, সব কিছুই হয়েছে ভাইরাল। এই দুটি মানুষকে নিয়ে সকলে সোশ্যাল মিডিয়ায় করেছিল উপহাস অথবা নিন্দা।


তেমনি বোধ করি কিছুটা করতে চেয়ে ছিলেন জনপ্রিয় গায়ক অনীক ধর। কিন্তু শেষটা ঠিক করে উঠতে পারলেন না, বা বলা ভাল ঠিক সেইভাবে গ্রহণ করল না সাধারণ মানুষ। প্রশংসার বদলে নিন্দা কুড়োতে হল তাঁকে।অনীক ধর, যিনি সারেগামাপা রিয়ালিটি শো থেকে উঠে এসেছিলেন। আজ জনপ্রিয় একজন সংগীতশিল্পী।


সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া কাঁপানো শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়ের সম্পর্কের রসায়ন নিয়ে একটি মজার মিউজিক ভিডিও তৈরি করেছিলেন তিনি। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করতে না করতেই নিমেষের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়। যতটা জনপ্রিয়তা পাবেন ভেবেছিলেন তিনি, কিন্তু ততোধিক নিন্দা জুটলো তার কপালে। সংগীতশিল্পী যা ভেবেছিলেন ঠিক তার উল্টোটা হয়ে গেল।


প্রশংসা করার বদলে অনিকের এই নিম্নরুচির নিন্দা করতে শুরু করেন সকলে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সংগীতশিল্পী নিজে সেজেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর পাশে এক মহিলাকে দেখা যাচ্ছে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের রূপে। দুজনে টোটোতে চেপে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং গান করছেন, ঠিক যেমন করেছিলেন শোভন-বৈশাখী ঘোড়ার গাড়িতে চেপে। অনিক সেজেছিল পাঞ্জাবিতে, রমণী সেজেছিল লাল শাড়িতে।


রুচিহীন গান দেখে বেজায় চটেছেন নেটিজেনদের একটি বড় অংশ। কোন কোন ব্যক্তি বলেছেন, "একটাই কথা বলার আছে, আপনার থেকে এরকম নোংরা সস্তা গান আশা করিনি"। অন্যজন বলেন, "বিখ্যাত হবার জন্য এমন করবেন ভাবতে পারিনি"। আবার কেউ অনুশোচনা সুরে লিখেছেন, "তোমাকে বেকার সারেগামাপা বিজেতা হিসেবে গ্রহণ করেছিল, সত্যি বলছি আমরা ভুল করেছিলাম"।

তবে এ বিষয়ে শোভন চ্যাটার্জীর ধর্মপত্নী রত্না চ্যাটার্জীর কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাইনি। 

Post a Comment

Previous Post Next Post