লীনা গঙ্গোপাধ্যায়কে এবার ট্রোল হতে হলো গাঁজা খেয়ে সিরিয়ালের গল্প লেখার জন্য!

 

শ্রীময়ী ধারাবাহিককে নিয়ে আগাগোড়াই নেটিজেনদের নানান বক্তব্য ছিল। ধারাবাহিকের এক একটা  এপিসোড হওয়ার পরপরই নেটিজেনদের তরফ থেকে আসে আরও একাধিক অভিযোগ। ধারাবাহিকের সমস্ত অভিনেতাদের বিরুদ্ধে নানান মন্তব্য করতেন তবে এইবার এই ধারাবাহিকের লেখিকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়কে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন নেটিজেনরা।


তাদের বক্তব্য ধারাবাহিকে অযৌক্তিক ঘটনাগুলি দেখানো হচ্ছে। শ্রীময়ী ধারাবাহিকের যে সমস্ত ঘটনাবলি দেখানো হচ্ছে সেগুলো বাস্তবের সঙ্গে কোন মিল নেই। তবে ধারাবাহিক সম্পর্কে নেটিজেনদের এই ধরনের অভিযোগ বারে বারে কেন উঠে আসছে? ধারাবাহিক সম্পর্কে নানান অভিযোগে কারণ হলো ধারাবাহিকটির গল্প। বর্তমানে শ্রীময়ী ধারাবাহিক দিকে রোহিত সেন একেবারে বাদ পড়ে গেছে। রোহিত সেনকে অপহরণ করা হয়েছে এবং তারপরই গল্প বেড়েই চলেছে। 


রোহিত সেন অপহরণ হয়েছে অথচ শ্রীময়ীর কাজ যা হওয়া উচিত তার করছে না। এই ধরনের অভিযোগ আসছে নেটিজেনদের তরফ থেকে। পুলিশকে কোন রকম কাজে না লাগিয়ে নিজেই গোয়েন্দাগিরি করে এগোচ্ছেন। রোহিত সেনকে খোঁজার জন্য প্রাইভেট ডিটেকটিভের কাছে গেছে শ্রীময়ী। রোহিত এখন ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং তাকেই অপহরণ করেছে কেউ।


ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে শ্রীময়ী শুধুমাত্র রোহিত সেনের ছবি দেখেই কেঁদে কেটে যাচ্ছে, বাদবাকি আর কোন কাজে কাজে করছে না এই জন্য এই অভিযোগ উঠছে নেটিজেনদের তরফ থেকে। এ ধরনের অবাস্তব গল্পগুলি ধারাবাহিকে দেখানোর ফলে টিআরপিতে একেবারে নিচের দিকে চলে যাচ্ছে ধারাবাহিকগুলো। গল্পের গতিবেগ দেখে এখন সমস্ত রাগ এবং অভিযোগে  গিয়ে পড়েছে  ধারাবাহিকের লেখিকার উপরে। 


এই অভিযোগগুলোকে কেন্দ্র করে এবার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়কে নিয়ে ফেসবুকের একটি পেজে ট্রোল করা হলো। লেখিকার একটি ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে সেখানে লেখা হয়েছে," এভাবে হা করে কী দেখছিস? গাঁজা খেয়ে নিয়ে সমস্ত গল্পগুলি আমি লিখি। একটা হিরোর কখনো দুটো বউ থাকে, আবার একটা বউয়ের কখনো চারটে ঘর থাকে, আবার একজন বুড়ির থাকে পাঁচটা প্রেমীক। এই ধরনের গল্প আমি লিখি"।


Post a Comment

Previous Post Next Post