অনেকে বলছেন মানুষ ধর্ষণ করেছিলো ওই ছাগলকে

একটি ছাগল কে ঘিরে উত্তেজনা চরমে, ঘটনাটি ঘটেছে অসমের চাচর জেলার গঙ্গারামপুর গ্রামে, যা দেখতে ভিড় জমিয়েছে  বহু মানুষ, তবে ঘটনাটি অত্যন্ত বিরল এক ঘটনায় বলা যেতেই পারে।

 এহেন ঘটনা সচরাচর চোখে পড়ে না, এমনকি এই খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া মাত্রই ভাইরাল হতেও সময় নেয়নি। প্রত্যেকেই হতবাক হন এমন ঘটনায় এবং প্রত্যেকে একটি কথাই ভেবেছেন এও সম্ভব? হয়ত এ যুগেই এসব সম্ভব, কারণ এরক ঘটনার কথা কেউ কখনো শুনিনি, আসুন জানা যাক ঘটনা সম্পর্কে বিস্তৃত ভাবে।

 একটি ছাগল সন্তান প্রসব করেছে যা হুবহু দেখতে মানুষের বাচ্চার মত,  যদিও মৃত সন্তান জন্ম দিয়েছে ছাগলটি, তবে সেই শিশুটির চোখ নাক মুখ দেখতে অনেকটাই মানব শিশুর মতনই, ইতিমধ্যেই গ্রামবাসীরা সেই ছাগশিশুটির শেষকৃত্য সম্পন্ন করে ফেলেছেন, তবে অনেকেই মনে করছেন এহেন ঘটনা এক অশুভ প্রতীক। সমাজে এইধরনের নানান কথাই প্রচলিত থাকে, অনেক কুসংস্কারও থাকে। যদিও এই নিয়েই সমাজ গঠিত হয় এবং আমরাও সেই সমস্ত কিছুকে বিশ্বাস করে মেনে চলি।

 এ ক্ষেত্রেও ঠিক তাই, তবে ছাগ শিশুটির পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার ক্ষেত্রে কিছু বাধা-বিপত্তি থাকলেও, মা ছাগলটির পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়ে ইতিমধ্যেই চর্চা শুরু হয়েছে। কারণ ঠিক কি কারনে এহেন ব্যতিক্রম শিশুর জন্ম হলো সেটি গবেষকরা ও পশুচিকিৎসকরা জানতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এটিও একটি গবেষণার বিষয় এবং এটির ক্ষেত্রে আরো নতুন দিগন্ত খুলে যেতে পারে আগামী দিনে। তবে  এ বিষয়ে আপাতত আলোচনা শুরু হয়েছে, এখনো তাঁকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়নি দেখা যাক আগামী দিন কি হতে চলেছে।

Swati Das Banerjee, News 247 Bangla

Post a Comment

Previous Post Next Post