নাতিকে গ্ৰহন করেছে পরিবার

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে কোন খবরই ছড়িয়ে পড়তে সময় নেয় না। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত সমাজের যে ছবি উঠে আসছে তা অত্যন্ত ভয়ঙ্কর।

সম্প্রতি যে খবরটি ভাইরাল হয়েছে তা হলো দুই গৃহবধূ কাণ্ডকারখানা, কর্মকার পরিবারের দুই গৃহবধূ তাদের প্রেমিকের হাত ধরে এক সময় ঘর ছেড়েছিল, কিন্তু বর্তমানে তাদের আর ফিরিয়ে নেয়া হয়নি তাদের শ্বশুরবাড়িতে। কর্মকার পরিবারের এই দুই বধূর নাম অনন্যা ও রিয়া, যারা দুই রাজমিস্ত্রি শেখর রায় ও শুভ্রজিৎ দাসের হাত ধরে বাড়ি ছেড়েছিলেন। 

   বুধবার তাদের চারজনকে আসানসোলের স্টেশনে, মুম্বাই মেল থেকে আটক করা হয়। তবে শুধুমাত্র তাঁরা চারজনই ছিল না সাথে ছিল রিয়ার ছেলে আয়ুষও। অবশ্য আয়ুষকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে শেখর ও শুভ্রজিৎ এর বিরুদ্ধে। যদিও সেটই এখনো প্রমাণিত হয়নি, আপাতত বালির নিশ্চিন্দার বাসিন্দা কর্মকার পরিবারের সম্মান বর্তমানে তলানিতে ঠেকেছে। তবে গত বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হয় তাঁদের এবং ইতিমধ্যে বিচারকের রায়ে তারা জেল হেফাজতে।

 তবে কর্মকার পরিবার অর্থাৎ আয়ুশের জ্যাঠা পলাশ কর্মকার তাদের ভাইপোকে ফেরত পেয়ে আনন্দিত, কিন্তু অপরদিকে সমস্ত বিষয়টিকে নিয়ে তারা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। যে কারণে তাঁদের দুই বৌমাকে আপাতত বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে, ভবিষ্যতে তাদের শ্বশুর বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে কিনা সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত তারা নেননি।

 তবে অনেকেই মনে করছেন তাদের শ্বশুরবাড়ী ফিরে যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় আছে, এহেন ঘটনা হয়তো প্রতিনিয়তই আমাদের আশেপাশে ঘটে চলেছে, যার ফলে যে সামাজিক অবস্থার সম্মুখীন আমরা হচ্ছি, তাতে আগামী ভবিষ্যৎ খুব একটা উজ্জ্বল হবে না।

Post a Comment

Previous Post Next Post