ছেলেকে আমেরিকায় প্রশিক্ষণ নিতেও পাঠিয়েছিলেন

এ কেমন দাবি, এক বছরের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে দিতে হবে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ। এমনই মামলা দায়ের হয়েছে আদালতে, হরিদ্দারের একটি স্থানীয় আদালতে  মামলা দায়ের করেছেন এক দম্পতি।

 এই বৃদ্ধ দম্পতির দাবী ছেলে বৌমার বিরুদ্ধে, তাঁরা চান একটি নাতি অথবা নাতনী, যার সাথে বাকি জীবনটা কাটাতে পারবেন তাঁরা, এক সময়ের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা ভেলের এক পদস্থ আধিকারিক ছিলেন সঞ্জীব রঞ্জন প্রসাদ। তাদের একটি মাত্র ছেলে শ্রেয়, ছেলেকে উচ্চশিক্ষার জন্য মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করতেও দ্বিধাবোধ করেননি সেই দম্পতি।

 ছেলেকে আমেরিকায় প্রশিক্ষণ নিতেও পাঠিয়েছিলেন, ছেলের নাম শ্রেয় সাগর, তিনি বিয়ে করেছেন নয়ডার বাসিন্দা শুভাঙ্গী সিংহকে। বিয়ের প্রায় ছয় বছর বেরিয়েছে এখনো পর্যন্ত কোনো সন্তানের জন্ম দিতে চাননি এবং  যার ফলে ছেলে-বৌমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন এই বৃদ্ধ দম্পতি। তাদের দাবি আগামী এক বছরের মধ্যেই তাঁরা নাতি-নাতনি না দিতে পারলে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

 এ থেকেই বোঝা যায় সমাজের এ কি করুন বাস্তব চিত্র, কারণ সন্তানকে তাঁর বাবা-মা প্রতিষ্ঠা করতে জীবনের সবটুকু কষ্ট অর্জিত অর্থ ব্যয় করে ফেলেন, যাতে সন্তান ভালো থাকে, ভালো জায়গায় প্রতিষ্ঠিত হয়। অপরদিকে ছেলের বিয়ে দিয়ে নাতি-নাতনির মুখ দেখবে এ প্রত্যাশা প্রত্যেক বাবা-মায়ের, কিন্তু বিয়ের দীর্ঘ ছয় বছর হয়ে গেলেও শুভাঙ্গী সন্তান জন্ম দিতে চান না। আদৌ কবে চান তারও কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

 ঠিক কি কারণে তাদের এতটা অনীহা তা স্পষ্ট নয়,  বর্তমানে বৃদ্ধ বয়সে এসে এই বৃদ্ধ দম্পতি মানসিক যন্ত্রণা ভোগ করছেন, যে কারণে তাঁরা পরিস্থিতির জেরেই আদালতের কাছে ক্ষতিপূরণের দাবি করেছেন।

Post a Comment

Previous Post Next Post