স্লোগান শোনা গেল "চৌকিদার চোর হ্যায়"

একটি ভিডিওকে ঘিরে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে সোশ্যাল মাধ্যমে, ভিডিওটি পাক সংসদের এবং এই ভিডিওটি আপলোড করেছেন ফাহিম খান, তাঁর নিজস্ব টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে।


  তিনি এই ভিডিওটি করার সাথে সাথেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়, কিন্তু কেন? আসুন জানা যাক কি জন্য এত উত্তেজনা ছড়িয়েছে। আমরা সকলেই জানি বিগত এক মাস ধরে রাজনৈতিক অস্থিরতার সাক্ষী রয়েছে পাকিস্তান, যে কারণে বিরোধীরা ইমরান খানকে গদিচ্যুত করার প্রস্তাব দেয়, শেষ পর্যন্ত নিজের গদি ধরেও রাখতে পারেননি প্রাক্তন পাক কাপ্তান। পাক সংসদের রায়ে পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী হয়ে শপথ নিয়েছেন শাহবাজ শরীফ, তবে ফাহিম খান তাঁকে ভিখারী বলে কটাক্ষ করেছেন। এখানেই শেষ নয় এমনকি তাঁকে "আন্তর্জাতিক ভিখারি" বলেও সম্বোধন করেছেন।

 ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে তিনি পাক সংসদের মধ্যেই রয়েছেন এবং ঘুরে ঘুরে সংসদ দেখাচ্ছেন এবং তারপর তিনি বলেন আসল ভিখারীর সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন বলে তিনি শাহবাজ শরীফকে দেখান। এটি সেই দিনের ছবি যেদিন ইমরান দলের নেতারা পদত্যাগ করেন এবং একই দিনে শাহবাজ শরীফ কুরসি দখল করেন। তবে ইমরান সর্মথক নেটিজেনরা  তাঁর সাহসিকতার ভূয়শী প্রশংসা করেছেন। ইতিমধ্যেই এক নেটিজেন মন্তব্যই করেন যে, দেশটি ফের মাফিয়ার হাতে চলে গেল।


এমনকি রবিবার পাকিস্তানেও ফের সেই স্লোগান শোনা গেল "চৌকিদার চোর হ্যায়", পাক পাঞ্জাব প্রদেশের লাল হাভেলিতে মোদির বিরুদ্ধে দেওয়া রাহুল গান্ধীর সেই শ্লোগান তোলেন তেহরিক-ই-ইনসাফের নেতাকর্মীরাও, তবে তা শাহবাজ শরীফের বিরুদ্ধে নয়, যে অনাস্থা ভোট এনে ইমরান খানের সরকারকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে, সেই অভিযোগে। তবে অনেকেই দাবি করছেন ইমরান খানের পরে নওয়াজের ভাই  শাহবাজ এত সহজে ক্ষমতায় আসার কারণ হলো সেনার সাথে সুসম্পর্ক। তবে এ সমস্ত কিছুর ওপরেও ফাহিম খানকে নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে, তাঁর সাহসিকতা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে, এ নিয়ে কোন দ্বিমত নেই।

Post a Comment

Previous Post Next Post